টিক্কা কাবাব

Spread the love

কাবাব অতি পরিচিত এবং সুস্বাদু স্টারটার পদ। কাবাব কোথা থেকে, কে আবিষ্কার করেছে এই নিয়ে অনেক মত বিরোধ আছে। এই যেমন ধরুন কেউ বলে, মিডিল ইস্ট দেশে নাকি প্রথম কাবাব মানে ঝলসানো মাংসের প্রচলন। আবার ইবন বতুতা এর মতে কাবাব হল রাজকীয় পদ এই ভারতবর্ষের।সে যাইহোক, এই নিয়ে তর্ক- বিতর্ক না করে আমরা বরং আমাদের মত করে টিক্কা কাবাব বানানোর চেষ্টা করি। ও বলে রাখি প্রথমেই আমি বাড়িতে থাকা উপকরণের মাধ্যমে কাবাব টি বানানোর চেষ্টা করেছি আর আমি চাইব আমার পাঠক বন্ধুরা একটি বার বাড়িতে অল্প কষ্টে বানিয়ে খেয়ে বলবেন কেমন লাগলো?ও হ্যাঁ আমার সকল বাঙালি পাঠক বন্ধুদের শুভ বিজয়ার প্রীতি ও শুভেচ্ছা।কাবাব দু ভাবে বানানো যাই- প্যান ফ্রায়ডেগ্রিলড

উপকরণ

প্রথমেই বলেছি বাড়িতে থাকা সমস্ত মজুত থাকবে এমন উপকরণ দিয়েই আমরা এই কাবাবটি বানাব , তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

  1. ১৫০ গ্রাম চিকেন
  2. জল ঝরানো টক দই
  3. একটি বড় পেঁয়াজ
  4. ৫-৬ টি পুদিনা পাতা ( না থাকলে ধনে পাতা ও দিতে পারেন)
  5. দুটি পাকা লঙ্কা
  6. ১ চা চামচ আদা বাটা
  7. ১ চা চামচ রসুন বাটা
  8. কাবাব মশলা (বাজার থেকে যে কোনও কেনা কাবাব মশলা ব্যবহার করতে পারেন)
  9. গরম মশলা গুঁড়ো
  10. মধু(এটি কাবাবে চিনির বদলে ব্যবহার করেছি, স্বাদ বদলের জন্য)
  11. সাদা তেল
  12. প্রয়োজন মত নুন।

[বি.দ্র নন- স্টিক প্যান থাকলে কাবাবটি করতে সুবিধা হবে, নয়ত এমনি কড়াই বা চাটুতে ও করা যেতে পারে।]

প্রণালী

১.প্রথমে চিকেন ভালভাবে ধুয়ে জল ঝরিয়ে রাখতে হবে।

২. পেঁয়াজ, লঙ্কা আর পুদিনা পাতা মিক্সিতে ভালভাবে বেঁটে নিতে হবে।(চাইলে শীলেও বাঁটতে পারেন।)

৩. এরপর চিকেনে গুঁড়ো মশলা ও রসুন আদা বাটা এবং পরিমান মত নুন দিয়ে দিতে হবে।

৪.এই চিকেনে এখন বাটা মশলা আর ১ টেবিল চামচ মধু যোগ করে ম্যারিনেট করতে হবে।

৫. জল ঝরানো টকদই সবার শেষে মেশাব। এখন প্রশ্ন হতে পারে কেন জল ঝরানো? -কারন এই মিশ্রণ বা ম্যারিনেশনটি কম্ পক্ষে ৩-৪ ঘণ্টা রাখতে হবে সে জন্যে জল ঝরানো টকদই হলে জল কাটার সম্ভবনা থাকবে না।

৬. সমস্ত উপকরন ও সামান্য একটু তেল দিয়ে ভালভাবে ম্যারিনেট করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৩-৪ ঘণ্টার জন্য ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। যখন ফ্রিজ থেকে বের করা হবে তখন চিকেন ভালভাবে ম্যারিনেট হয়ে যাবে।

৭. এখন নন- স্টিক প্যান এ সাদা তেল ঢেলে একটু গরম করতে হবে।

৮. তেল হাল্কা গরম হলে তাতে এক একটি চিকেনের টুকরো ছাড়তে হবে।

৯. এক পাশ ভাজতে ৩-৪ মিনিট মত সময় দিতে হবে, তারপর অপর দিকে উল্টাতে হবে।

১০. দুদিক ভালভাবে ভাজা হয়ে গেলে পরিবেশনের জন্য তৈরি হয়ে যান।

[বি.দ্র. আমি কোনও রকম কাঠ কয়লা ব্যবহার করিনি, তবুও স্মোকই স্বাদ বজায় ছিল কেন কি আমি ভাজার সময় একটু বেশি দিয়েছিলাম যার ফলে চিকেন নিজে থেকেই ধোঁয়া ওঠা ব্যাপারটা বাড়িয়ে তুলেছে।]

ও আর একটা কথা লেবু ছাড়া কাবাব টা খেয়ে দেখবেন জাস্ট অসাধারন আর মুখে দিলেই গলে যাছে, তবুও যারা লেবু খেতে চান অবশ্যই নেবেন আমি আমার ভালোলাগাটা শেয়ার করলাম। আপনারা একবার বাড়িতে করে খেয়ে দেখুন দারুন লাগবে।

100% LikesVS
0% Dislikes

5 thoughts on “টিক্কা কাবাব”

Leave a Comment

error: Content is protected !!